Home / Notice / Two new teachers are being created in all schools

Two new teachers are being created in all schools

বেকারত্ব দূর করার লক্ষ্যে সাধারণ স্কুলে কর্মমুখী শিক্ষা চালু করার উদ্যোগ নিয়েছে বাংলাদেশ সরকার। এ বিষয়ে সম্প্রতি শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, ২০২১ সাল থেকে সব স্কুল ও মাদরাসায় কারিগরির ২টি ট্রেড চালু হবে বলে। আর সে লক্ষ্যেই কাজ শুরু করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

 

Join our Facebook Group Get job update & discuss about Job related Topics.

Like Our Page&Facebook Group

ইতোমধ্যে সাধারণ স্কুলগুলোতে দুইজন কারিগরি শিক্ষকের পদ সৃষ্টি করার বিষয়ে আলোচনা চলছে। মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

এদিকে গত ২৩ জুন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি জানান, ২০২১ সাল থেকে ৬ষ্ঠ, ৭ম ও ৮ম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের ২টি কারিগরি বিষয় পড়তে হবে। বেকারত্ব দূর করতেই সরকার এ উদ্যোগ নিয়েছে বলে জানান তিনি।

 

জানা যায়, সর্বপ্রথম সেকেন্ডারি এডুকেশন সেক্টর ইনভেস্টমেন্ট প্রোগ্রামে (সেসিপ) আওতায় সাধারণ মাধ্যমিক স্কুলে কারিগরি কোর্স চালুর উদ্যোগ নেয়া হয়। প্রাথমিকভাবে দেশের ৬৪০টি স্কুলে কারিগরির দুইটি ট্রেড খোলার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিল। সে প্রেক্ষিতে গত ফেব্রুয়ারিতে শুরু হয়েছিল ১ হাজার ২৮০জন শিক্ষক নিয়োগের আলোচনা। কিন্তু পরবর্তীতে শুধু ৬৪০টি নয় সব স্কুলে কারিগরি কোর্স খোলার বিষয়ে সরকারের উচ্চ পর্যায় থেকে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

পরবর্তীতে শিক্ষামন্ত্রী ও শিক্ষা উপমন্ত্রী অবশ্য বিভিন্ন অনুষ্ঠানে সাধারণ স্কুল ও মাদরাসায় কারিগরি কোর্স খোলার বিষয়টি জানিয়েছেন।

 

জানা যায়, গত ১৪ জুলাই শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সভা কক্ষে অনুষ্ঠিত এক সভায় এ বিষয়ে আলোচনা হয়। সভায় ২০২১ সাল থেকে সাধারণ শিক্ষায় কারিগরি কোর্স খুলতে শিক্ষক নিয়োগের লক্ষ্যে সব স্কুলে দুইটি কারিগরি ট্রেডের শিক্ষকের পদ সৃষ্টি করার বিষয়ে প্রাথমিক সিদ্ধান্ত হয়েছে।

সভায় উপস্থিত একজন কর্মকর্তা জানান, বেকারত্ব দূর করতে সাধারণ স্কুল কলেজে দুইটি কারিগরি বিষয় চালু করতে শিক্ষকদের পদ সৃষ্টি বিষয়ে আলোচনা হয়েছে সভায়। সভায় পদসৃষ্টির বিষয়ে প্রাথমিক সিদ্ধান্ত হয়েছে। তবে, এ বিষয়ে শিক্ষামন্ত্রীর সভাপতিত্বে আরও একটি সভা অনুষ্ঠিত হবে। সে সভায় সিদ্ধান্তটি চুড়ান্ত হবে।

তিনি জানান, সাধারণ স্কুলে ২টি কারিগরি শিক্ষকের পদসৃষ্টির চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হলে তা বাস্তবায়নে অর্থ মন্ত্রণালয়ের সম্মতি লাগবে। অর্থ মন্ত্রণালয়ের সম্মতি পাওয়া গেলে এমপিও নীতিমালা ও জনবল কাঠামোতে পদ দুটি অন্তর্ভুক্ত করা হবে।

নতুন দুটি শিক্ষক পদ সৃষ্টি হচ্ছে সব স্কুলে

নতুন দুইটি পদে কবে নাগাদ শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হবে এবং কোন পদ্ধতিতে শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হবে সে বিষয়ে এ কর্মকর্তা জানান, এনটিআরসিএর মাধ্যমে কারিগরি বিষয়ে নিবন্ধিত শিক্ষকরাই এসব পদে নিয়োগ পাবেন। তবে, এসব বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা আরও কয়েক দফা আলোচনা করবেন বলেও জানান তিনি।

এছাড়া আাগামী বছর থেকে সাধারণ স্কুলে সৃষ্ট কারিগরি শিক্ষকদের পদগুলোতে নিয়োগ দেয়া হবে বলেও জানান এ কর্মকর্তারা। সৃষ্ট পদগলো অর্থ মন্ত্রণালয়ের সম্মতিক্রমে জনবল কাঠামোতে অন্তর্ভুক্ত হবার পর নিয়োগপ্রাপ্তরা এমপিওভুক্ত হতে পারবেন বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

Check Also

Primary 4th Phase Exam Date And District List 2019

Primary 4th Phase Exam Date And District List 2019 has been published. Primary School Assistant …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *